1. [email protected] : দেশ রিপোর্ট : দেশ রিপোর্ট
  2. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  3. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন : Renex অনলাইন
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন

মেসির ইতিহাস গড়ার দিনে গোলোৎসবে মাতল বার্সেলোনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সোমবার, ২২ মার্চ, ২০২১

ইতিহাস গড়ার ম্যাচে আলো ছড়ালেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন ফরাসি মিডফিল্ডার আঁতোয়া গ্রিজমান।

প্রতিপক্ষের মাঠে রোববার রাতে লা লিগার ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদের জালে গোলোৎসব করল বার্সেলোনা।

একে একে ৬বার বল জড়ালো সোসিয়েদাদের জালে।  জোড়া গোলের দেখা পেলেন বার্সার সেরা তারকা মেসি ও সার্জিনো ডেস্ট।  একটি করে গোল পেয়েছেন গ্রিজম্যান ও দেম্বেলে।

আর রিয়াল সোসিয়েদাদের পক্ষ থেকে একটিমাত্র গোল শোধ করতে পেরেছে আন্দের বারেনিতিয়া।

ম্যাচটি ছিল লিওনেল মেসির রেকর্ড ছোঁয়ার। এ ম্যাচে মাঠে নামার সঙ্গেসঙ্গে ক্লাবের ইতিহাসে চাভি এরনান্দেসের সর্বোচ্চ ম্যাচের রেকর্ড স্পর্শ করেছিলেন মেসি। ৭৬৮ ম্যাচ খেলে এবার রেকর্ডটি নিজের করে নিলেন আর্জেন্টাইন খুদেরাজ।

ম্যাচে গোলোৎসবের শুরুটা করে দেন আঁতোয়া গ্রিজমান।  ৩৭তম মিনিটি দারুণ ছন্দে থাকা মেসির পাস ডি-বক্সে বাঁ দিকে পেয়ে ছয় গজ বক্সের মুখে বাড়ান জর্দি আলবা। তাতে দেম্বেলে পা ছোঁয়ালে তা ঠেকিয়ে দেন রেমিরো। কিন্তু বল চলে যায় গ্রিজমানে পায়ে। মুহূর্তেই তা সোসিয়েদাদের জালে প্রবেশ করিয়ে শুভসূচনা করেন গ্রিজমান।

নিজের জন্মদিনটাও এভাবেই উদযাপন করেন এই ফরাসি অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার।

৪৩তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন যুক্তরাষ্ট্রের তরুণ ডিফেন্ডার সার্জিনো ডেস্ট।  এই গোলের সূচনাও মেসির পায়েই।  বার্সা অধিনায়কের দারুণ পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে কোনাকুনি শটে লা লিগায় নিজের প্রথম গোলটি করেন ডেস্ত।

২-০ গোলের ব্যবধানে প্রথমার্ধ শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধে নেমেই খেলা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ নেয় বার্সা।  তার ফলও পায় ৫৩তম মিনিটে।  বাঁ দিক দিয়ে দারুণ গতিতে ডি-বক্সে ঢুকে এবং দুই ডিফেন্ডারকে এড়িয়ে বাইলাইন থেকে ছয় গজ বক্সে ক্রস বাড়ান আলবা। এক ডিফেন্ডারকে ক্লিয়ার করে গোলমুখের দিকে শট নেন আলবা। বল ডেস্টের পায়ে লেগে সোসিয়েদাদের জালে ঢুকে পড়ে।

জোড়া গোল পূর্ণ হয় ডেস্টের।  ওই গোলের মাত্র তিন মিনিট পর জালের দেখা পান মেসি। মাঝমাঠ থেকে সের্হিও বুসকেতসের উঁচু করে বাড়ানো বলকে টেনে নিয়ে দুই জনের মধ্যে দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন মেসি।  এরপর বাঁ পায়ের টোকায় গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে বল জালে জড়ান মেসি।

স্কোরলাইন তখন ৪-০।  বোঝাই যাচ্ছিল, এ ম্যাচে আর ফিরতে পারবে না রিয়াল সোসিয়োদাদ।  দেখার বিষয় ছিল একহালি পূরণের পর আর গোলসংখ্যাটা আরও বাড়াতে পারে কি না।  বার্সা সমর্থকরা সেই আশাতেই টিভিস্ক্রিণে তাকিয়েছিলেন।

সেটা যেন বুঝতে পারলেন উসমান দেম্বেলে।  ম্যাচের শুরু থেকে দুর্দান্ত খেলে আসা দেম্বেলে ৭১তম মিনিটে স্কোরবোর্ডে নাম লেখালেন। মাঝমাঠ থেকে ইলাইশের বাড়ানো বল ধরে কিছুটা এগিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন এই ফরাসি ফরোয়ার্ড।

৭৭ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে হঠাৎ বুলেট গতির শটে বার্সার জালে বল জড়িয়ে দেন সোসিয়েদাদের তরুণ ফরোয়ার্ড আন্দের বারেনিতিয়া। যা দলটির একমাত্র সান্ত্বনাসূচক গোল।

নির্ধারিত সময় শেষের আগের মিনিটে আলবার পাস ফাঁকায় পেয়ে ফের সোসিয়েদাদের জাল কাঁপান মেসি।

রেফারির শেষ বাঁশিতে ৬-১ গোলের ব্যবধানে মাঠ ছাড়ে রোনাল্ড কুম্যানের দল।

আসরেএই নিয়ে টানা ১৮ ম্যাচ অপরাজিত রইল বার্সেলোনা।  ১৫ জয় ও তিন ড্রয়ে লিগ টেবিলে রিয়াল মাদ্রিদকে টপকে আবারও দুইয়ে ফিরল বার্সেলোনা।   ৪ পয়েন্ট বেশি নিয়ে শীর্ষে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ।

 

শেয়ার:
আরও পড়ুন...
স্বত্ব © ২০২৩ দৈনিক দেশবানী
ডিজাইন ও উন্নয়নে - রেনেক্স ল্যাব