1. [email protected] : দেশ রিপোর্ট : দেশ রিপোর্ট
  2. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  3. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন : Renex অনলাইন
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন

ভারত বায়োটেকের টিকার ‘তড়িঘড়ি অনুমোদন’ নিয়ে তীব্র উদ্বেগ, সমালোচনা

নিজস্ব সংবাদদাতা
  • সোমবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২১

ভারতে একটি কোম্পানির তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ব্যবহারে ট্রায়াল সম্পূর্ণ হবার আগেই যেভাবে সরকারি অনুমোদন দেয়া হয়েছে – তাতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

কোভ্যাক্সিন নামের এই টিকাটিকে ভারতে সরকারি অনুমোদন দেয়া হয় রোববার। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এর পর ঘোষণা করেন, এই টিকা হবে এক ‘গেম-চেঞ্জার’।

কিন্তু স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করছেন যে এর অনুমোদন দেবার প্রক্রিয়ায় তাড়াহুড়ো করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে নজরদারি করে এমন একটি প্রতিষ্ঠান অল ইন্ডিয়া ড্রাগ এ্যাকশন নেটওয়ার্ক বলেছে, ব্যাপারটায় তারা ‘স্তম্ভিত।’

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, টিকাটি কতটুকু কার্যকর সে ব্যাপারে কোন উপাত্ত নেই এবং এ ব্যাপারে স্বচ্ছতারও অভাব রয়েছে – যা গুরুতর উদ্বেগের জন্ম দিয়েছে।

“এর ফলে উত্তরের চেয়ে বেশি প্রশ্ন তৈরি হবে এবং বৈজ্ঞানিক ক্ষেত্রে আমাদের সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর আস্থা বাড়বে না। “

এই বিবৃতির আগে ভারতের ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল ভি জি সোমানি জোর দিয়ে বলেন, কোভ্যাক্সিন ১০০% নিরাপদ এবং এটা মানবদেহে শক্তিশালী রোগপ্রতিরোধী প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে।

তিনি বলেন, ভ্যাকসিনটি সীমিত ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত হয়েছে এবং “এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া অন্য সব টিকার মতই – যেমন সামান্য জ্বর, ব্যথা এবং এ্যালার্জি।”

কিন্তু অল ইন্ডিয়া ড্রাগ এ্যাকশন নেটওয়ার্ক বলছে, যে ভ্যাকসিনের পরীক্ষা অসম্পূর্ণ রয়ে গেছে তাকে এভাবে অনুমোদন দেবার বৈজ্ঞানিক যুক্তি তারা বুঝতে পারছেন না।

ভারতের অগ্রগণ্য চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের একজন ড. গগনদীপ কাং বলেন, এরকম ঘটনা তিনি আগে কখনো দেখেননি।

তিনি বলেন, এ টিকাটির কার্যকারিতা কতখানি সে ব্যাপারে কোন উপাত্তই নেই যা প্রকাশ বা উপস্থাপন করা হয়েছে।

শেয়ার:
আরও পড়ুন...
স্বত্ব © ২০২৩ দৈনিক দেশবানী
ডিজাইন ও উন্নয়নে - রেনেক্স ল্যাব