1. [email protected] : দেশ রিপোর্ট : দেশ রিপোর্ট
  2. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  3. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন : Renex অনলাইন
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০২:০৪ পূর্বাহ্ন

বেগম রোকেয়ার ভাস্কর্য ‘আলোকবর্তিকা’ উন্মোচিত রংপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা
  • বুধবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২০

বাংলার নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়ার ভাস্কর্য ‘আলোকবর্তিকা’ উন্মোচিত হয়েছে রংপুর নগরীতে।

মহীয়সী এই নারীর জন্ম ও মৃত্যুদিনে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর শালবন ইন্দ্রার মোড়ে নির্মিত ভাস্কর্যটি উন্মুক্ত করা হয়।

ভাস্কর অনীক রেজা এই মহীয়সী নারীর ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেন।

ভাস্কর অনীক রেজা জানান, সিটি করপোরেশন থেকে তাকে ভাস্কর্যটি উন্মুক্ত করতে বলা হয়। এজন্য ছোটো পরিসরে তিনি ভাস্কর্য উন্মুক্ত করার প্রস্তুতি নেন।

এই সময় সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক এবং রংপুরের কয়েকজন সাংস্কৃতিক কর্মী, কবি ও লেখক উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন রংপুর মহানগর সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগের জেলা সাংস্কৃতিক সম্পাদক আতিক উল আলম কল্লোল বলেন, রংপুর নগরের শালবন ইন্দ্রার মোড়ে বিগত সিটি মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুর সময়ে বেগম রোকেয়ার ভাস্কর্য নির্মাণ কাজের উদ্বোধন হয়েছিল। এরপর ধীরগতিতে চলা নির্মাণ কাজ হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায়।

তিনি জানান, মাটি থেকে শুধু উঁচু বেদি তৈরির পরে কয়েকটি ইটের পিলার ছাড়া তখন আর কিছুই ছিল না। অযত্ন অবহেলায় পড়ে থাকা বেদিটি ভরে ছিল ধুলোবালি আর বিভিন্ন ফেস্টুন পোস্টারে।

মুখ থুবড়ে পড়ে থাকা সেই বেদিটি দেখে হতাশ ছিলেন স্থানীয়রা। বিভিন্ন মহল থেকে তখন ওই ভাস্কর্য নির্মাণ কাজ দ্রুত শেষ করার দাবি জোরালো হয়ে ওঠে। অবশেষে বছর তিনেক বন্ধ থাকার পর আবার শুরু হয় নির্মাণ কাজ।

অনীক রেজা জানান, ভাস্কর্যটি ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে। এটির উচ্চতা মাটি থেকে ২০ ফুট। এরমধ্যে শুধু রোকেয়ার প্রতিকৃতি লম্বায় প্রায় ১২ ফুট। আর বেদির চারদিক জুড়ে রয়েছে ৫০ বর্গফুট জায়গা।

শেয়ার:
আরও পড়ুন...
স্বত্ব © ২০২৩ দৈনিক দেশবানী
ডিজাইন ও উন্নয়নে - রেনেক্স ল্যাব