1. [email protected] : দেশ রিপোর্ট : দেশ রিপোর্ট
  2. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  3. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন : Renex অনলাইন
রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৪৪ অপরাহ্ন

‘জোর করে কাউকে জাতীয় দলে খেলানো হবে না’

নিজস্ব সংবাদদাতা
  • শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকার কথা বলে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে আগেই ছুটি নিয়েছেন সাকিব আল হাসান।

এপ্রিলে হতে পারে ভারতের জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট আইপিএল। সেই সময়ে শ্রীলংকা সফরে তিনটি টেস্ট ও তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা রয়েছে বাংলাদেশ দলের।

অথচ দেশের এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ সফরে না গিয়ে অর্থের মোহে পড়ে আইপিএল খেলতে তখন ভারত সফরে যাওয়ার জন্য ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে অনুমতিপত্র নিয়েছেন সাকিব।

জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়কের দেখাদেখি একই পথ বেছে নিচ্ছেন দেশের অন্যতম সেরা পেসার মোস্তাফিজুর রহমানও।

এ ব্যাপারে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান শুক্রবার বলেছেন, শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজের সময় আইপিএল হবে। সাকিব টেস্ট না খেলে আইপিএলে খেলবে। চাইলেই এখন বোর্ড সবাইকে ছুটি দেবে। কেউ খেলতে না চাইলে তাকে জোর করতে চাই না আমরা। মোস্তাফিজ চাইলে তাকেও ছুটি দেব, সবাইকে দেব।

এ ব্যাপারে বিসিবির এক পরিচালক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, সাকিবকে আইপিএলে খেলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। মোস্তাফিজও টেস্ট খেলতে আগ্রহী নয়। সেও আইপিএলে খেলবে।

সাকিব আল হাসান দেশের হয়ে টেস্ট খেলতে না চাওয়ায় শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় ওঠে। সাকিবের এ সিদ্ধান্তে ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক হার্ষা ভোগলে টুইটারে লিখেছেন- অনেক ক্রিকেটারই দেশের হয়ে টেস্ট খেলার চেয়ে এখন আইপিএলকে বেছে নিচ্ছে।

সাকিব-মোস্তাফিজরা অর্থের মোহে আইপিএল খেলার সিদ্ধান্ত নিলেও দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা পেসার কাগিসো রাবাদা ব্যতিক্রম। প্রোটিয়া এই তারকা আইপিএলের অর্থের মোহে না পড়ে জাতীয় দলের হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। রাবাদা বলেছেন- আইপিএল নয়, আমার কাছে দেশ আগে।

বৃহস্পতিবার চেন্নাইয়ে অনুষ্ঠিত আইপিএলের ১৪তম আসরের নিলামে সাকিবকে তিন কোটি ২০ লাখ রুপিতে দলে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স। আর মোস্তাফিজুর রহমানকে ১ কোটিতে দলে নেয় রাজস্থান রয়েলস।

শেয়ার:
আরও পড়ুন...
স্বত্ব © ২০২৩ দৈনিক দেশবানী
ডিজাইন ও উন্নয়নে - রেনেক্স ল্যাব