1. [email protected] : দেশ রিপোর্ট : দেশ রিপোর্ট
  2. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  3. [email protected] : নিউজ ডেস্ক : নিউজ ডেস্ক
  4. [email protected] : অনলাইন : Renex অনলাইন
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন

ঘাস সবুজ, মাঠ সুন্দর, ফুটবলটাই শুধু জমল না

নিজস্ব সংবাদদাতা
  • বুধবার, ১৪ জুলাই, ২০২১

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের থিকথিকে কর্দমাক্ত মাঠ নিয়ে বেশ সমালোচনা হচ্ছিল। প্রায় দুই সপ্তাহের বিরতিতে মাঠে প্রাণ ফিরেছে। হাসছে সবুজ ঘাসগুলো। কিন্তু সুন্দর মাঠে উপভোগ্য ফুটবল হলো আর কোথায়?

শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ত্রীড়া চক্রের ম্যাচটি হলো নিষ্প্রাণ গোলশূন্য ড্র। গেল কয়েক দিনের বিরতিতে মাঠের ঘাসে প্রাণ ফিরেছে আর ফুটবলারদের পায়ে যেন পড়েছে জং। পরিষ্কারভাবে গোলের সুযোগও তৈরি করতে পারেনি কোনো দল।

মুক্তিযোদ্ধার আইভরি কোস্টের স্ট্রাইকার বাল্লো ফামুসার ব্যাক ভলি, শেখ রাসেলের গোলকিপার আশরাফুল ইসলামের ভালো একটি সেভ ও তাদের ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার জিয়ানকার্লো রদ্রিগেজের গোলের সুযোগ হাতছাড়া করা কোনো মুহূর্তই নোটবুকে তোলার মতো নয়।

টানা ৩ ম্যাচে বাংলাদেশ পুলিশ ফুটবল ক্লাব, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডসের বিপক্ষে জয় পেয়েছিল শেখ রাসেল। এর পরে কী যে হলো সাইফুল বারি টিটুর দলের! পরের টানা দুই ম্যাচে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে হারের পর আজ আবার করেছে ড্র। সর্বশেষ তিন ম্যাচে ৩ গোল খেয়েছে শেখ রাসেল, গোল করতে পারেনি একটিও!

দলটির মূল স্ট্রাইকার ব্রাজিলের রদ্রিগেজ। শুধু নামের পাশে ব্রাজিল আর ৬ ফুট ৩ ইঞ্চি উচ্চতার শরীরের জন্যই তাঁকে সমীহ করতে হয়। দুপায়ে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলের ছাপ বলতে এখন পর্যন্ত কিছু দেখা যায়নি।

শেখ রাসেলের প্রাণভোমরা মিডফিল্ডার মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ। উইঙ্গার হিসেবে খেলে চলতি লিগে ৫ গোল করেছেন তিনি। অনুশীলনে চোট পাওয়ায় আজ একাদশে ছিলেন না তিনি। তাঁর অনুপস্থিতিতে ৩ সেন্টারব্যাকের সঙ্গে দুজন উইংব্যাক খেলালেন সাইফুল বারি।

কিন্তু যে ওভারল্যাপিংয়ের উদ্দেশ্যে খালেকুজ্জমান সবুজ ও হাবিবুর রহমান নোলককে খেলানো হলো দুই প্রান্তে, সে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি এই দুই উইংব্যাক। আবার অনেক সময় তাঁরা আক্রমণে উঠলেও মাঝমাঠ থেকে পাননি বলের জোগান।

১৭ মিনিটে শেখ রাসেল একবারই একটা গোলের সুযোগ পেয়েছিল। সেখান থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয়েছেন রদ্রিগেজ। ৬৮ মিনিটে আব্দুল্লাহ বদলি হিসেবে নামলে কৌশল বদলে ৪-৪-২ ফরমেশনে চলে যায় শেখ রাসেল। রদ্রিগেজের সঙ্গে স্ট্রাইকার হিসেবে পাঠানো হয় ওবি মানেকে। কিন্তু দুজনের খেলাতেই ফিটনেসের অভাব ফুটে উঠল স্পষ্ট। খুবই ধীর ছিল তাঁদের গতি।

তুলনামূলক ভালো খেলেছে মুক্তিযোদ্ধা। মাঝমাঠের লড়াইয়ে মুক্তিযোদ্ধাকে এগিয়ে রেখেছেন অধিনায়ক ইয়েসুকো কাতো। জাপানি এই মিডফিল্ডারের থ্রুগুলোতে পোস্ট ছেড়ে বের হয়ে এসে ‘সুইপার ব্যাকের’ মতো করে বেশ কয়েকবার দলকে বিপদমুক্ত করেছেন শেখ রাসেল গোলকিপার আশরাফুল ইসলাম।

ম্যাচের শেষ দিকে দুর্দান্ত একটি সেভ করে দলকে হারের হাত থেকেও বাঁচিয়েছেন আশরাফুল। বাঁ প্রান্ত থেকে ইব্রাহিম আবুর ক্রসে দূরের পোস্ট থেকে বাল্লো ফামুসা পা লাগালে বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে দুর্দান্ত সেভ করেন তিনি। এর আগে ২০ মিনিটে বক্সের মধ্যে থেকে বাল্লো ফামুসার ব্যাক ভলি সাইড পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে যায়।

এই ড্রয়ে ১৭ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগের পয়েন্ট তালিকার ষষ্ঠ স্থানে শেখ রাসেল। ১১ পয়েন্ট নিয়ে ১১তম অবস্থানে মুক্তিযোদ্ধা।

শেয়ার:
আরও পড়ুন...
স্বত্ব © ২০২৩ দৈনিক দেশবানী
ডিজাইন ও উন্নয়নে - রেনেক্স ল্যাব